বাংলাদেশের কুড়িয়া গ্রামের এক সাধারণ পরিবার জন্মগ্রহণ করা একজন প্রতিবন্ধী ছেলে।ছোটবেলা থেকেই মানিক এর দুই হাত নেই।

ছোটবেলা থেকেই মানিক এর পড়াশোনা এর প্রতি প্রকান্ড ইচ্ছে।তার দুই হাত না থাকার জন্য লিখতে খুবই প্রবলেম হতো ফলে তার মা তাকে সাড়ে তিন বছর বয়স থেকে পা দিয়ে লেখা শেখাতেন।

এছাড়াও মানিক জানিয়েছে যে সাইন্সের সমস্ত সাবজেক্ট গুলো তার পড়তে খুবই ভালো লাগে।

ক্লাস ফাইভে পড়াকালীন মানিকের বাবা বলেছিল যদি ভাল রেজাল্ট করে তাহলে তাকে একটি ল্যাপটপ কিনে দেবেন। সেই অনুযায়ী মানিক ক্লাস 5 এ ভালো রেজাল্ট করেন এবং বৃত্তি পান।

জীবনের লক্ষ্য হলো সে একজন একটি ভালো সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হবেন।

মানিকের ওপরের ঠোঁটে অপারেশন দ্বারা ঠিক করলেও পা টি ঠিক করতে পারেননি।কারণ তার দুটি পা সমান নয় 6 ইঞ্চি মতো ছোটো একটি পা অন্যের তুলনায়।

মানিক জানান যে তাঁর এই অবস্থার জন্য প্রথমের দিকে তাকে বিভিন্ন অবহেলা শিকার হতে হয়েছিল।তিনি বিভিন্ন মানুষের কাছে বিভিন্ন রকম কটু কথা শুনে ছিলেন।

মানিকের সম্পর্কে আরো অজানা তথ্য জানতে নিচের পোস্টটি দেখুন দেখুন।