অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali

অক্ষয় কুমার কে?, অক্ষয় কুমারের জীবনী, বয়স, জন্ম তথ্য, শারীরিক পরিসংখ্যান (উচ্চতা, ওজন এছাড়াও অন্যান্য তথ্য), কর্মজীবন, বিতর্ক, পছন্দের জিনিসসমূহ, শিক্ষাগত যোগ্যতা, বাবা-মা এবং আত্মীয়স্বজন এছাড়াও প্রোফাইল, অক্ষয় কুমার সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য (Who is Akshay Kumar?, Akshay Kumar Biography, Age, Birth Information, Body Stats (Height, Weight Also Other Information), Career, Controversies, Favorite Things, Educational Qualification, Parents and Relatives Also Profile, Some Unknown Facts About Akshay Kumar)

অক্ষয় কুমারের জীবনী - Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali
অক্ষয় কুমারের জীবনী

আপনি কি অক্ষয় কুমার কে চেনেন? অক্ষয় কুমার হলেন ভারতের বলিউডের চলচ্চিত্র জগতের একজন নামকরা অভিনেতা. আপনি যদি অক্ষয় কুমারের জীবনী সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হন। তাহলে আমাদের এই পোস্টটি পড়ুন আমাদের এই পোস্টটিতে অক্ষয় কুমারের জীবনী সম্পর্কিত অজানা তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন।

Table of Contents

অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali

অক্ষয় কুমার কে? (Who is Akshay Kumar?)

অক্ষয় কুমার, যার জন্ম হয়েছিল রাজীব হরি ওম ভাটিয়া নামে ১৯৬৭ সালের ৯ সেপ্টেম্বর, তিনি একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং উৎপাদক যারা মূলত বলিউডে, মুম্বাই, ভারতে ভিত্তি বিশিষ্ট হিন্দি ভাষার চলচ্চিত্র শিল্পে কাজ করেন। তিনি ১৯৮০-এর দশকের শেষের দিকে তাঁর প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেছেন এবং ১৫০ টিরও বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন এবং তিনি তাঁর বিভিন্নতার জন্য পরিচিত, যেমন কর্ম, হাস্য, নাটক, এবং রোমান্স এই ধরনের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

কুমার তাঁর শারীরিক ফিটনেসের জন্যও পরিচিত এবং তিনি তাঁর চলচ্চিত্রের নিজের স্টান্ট প্রদর্শন করেন। তিনি তাঁর ক্যারিয়ারের দিকে অনেকগুলি পুরস্কার পেয়েছেন এবং তার মধ্যে অনেকগুলি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার রয়েছে, যা ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের মধ্যে সবচেয়ে গৌরবময়।

তাঁর অভিনয় ক্যারিয়ারের পাশাপাশি, কুমার বিভিন্ন পরোপকারী কার্যক্রমে জড়িত। তিনি স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা সম্পর্কিত উদ্যোগ চালু করেছেন এবং সামাজিক কারণে তাঁর অবদানের জন্য ভারত সরকার তাঁকে স্বীকৃতি দিয়েছে।

বয়স, জন্ম তথ্য এছাড়াও অন্যান্য তথ্য (Age, date of birth also other information)

আপনি কি অক্ষয় কুমারের বয়স জন্ম তথ্য এছাড়াও অন্যান্য তথ্য সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। তাহলে নিচের টেবিলটি দেখুন –

আসল নামরাজীব হরি ওম ভাটিয়া
ডাকনামঅক্ষয় কুমার
জন্ম তারিখ৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৬৭
বয়স৫৫ বছর (২০২৩ সালের হিসাবে)
জন্মস্থানঅমৃতসর, পাঞ্জাব, ভারত
হোম টাউনমুম্বাই, মহারাষ্ট্র, ভারত
রাশিচক্রপ্রযোজ্য নয় (আমার জ্ঞানের সীমাবদ্ধতা সেপ্টেম্বর ২০২১ পর্যন্ত, অক্ষয় কুমারের সাথে কোনও “রফি চক্র” সম্পর্কিত কিছু জানা যায় নি। এটি হতে পারে একটি টাইপ ভুল বা আমি যা পরিচিত নই।)
ধর্মহিন্দুধর্ম
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেতা, উৎপাদক
স্ত্রী নামটুইঙ্কেল খান্না (বিবাহ: ২০০১)
সন্তানআরভ কুমার, নিতারা কুমার

শারীরিক পরিসংখ্যান (Physical statistics)

আপনি কি অক্ষয় কুমারের উচ্চতা, ওজন এছাড়া অন্যান্য তথ্য সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। তাহলে নিচের টেবিলটি দেখুন –

বৈশিষ্ট্যতথ্য
উচ্চতা5′ 11″ (180 সেন্টিমিটার)
ওজন80 কিলোগ্রাম (176 পাউন্ড)
শরীরের পরিমাপবুক: 42 ইঞ্চি, কোমর: 34 ইঞ্চি, বাইসেপস: 16 ইঞ্চি
বাইসেপসের দৈর্ঘ্য16 ইঞ্চি
চোখের রংগাঢ় বাদামী
চুলের রংকালো

দয়া করে মনে রাখবেন যে এই তথ্যটি সম্পূর্ণ সঠিক হতে পারে না কারণ এটি বয়স, খাবার দাবার, এবং ব্যায়ামের মতো কারণগুলির কারণে সময়ের সাথে পরিবর্তন হতে পারে। এছাড়াও, অন্যান্য নির্দিষ্ট শরীরের অংশগুলির সম্পর্কে তথ্য গোপনীয়তা কারণে সার্বজনীনভাবে উপলব্ধ হতে পারে না। এই সমস্ত তথ্যগুলি সাথে সাথে পরিবর্তিত হতে পারে.

বাবা-মা এবং আত্মীয়-স্বজন (Parents and relatives)

হরি ওম ভাটিয়া এবং অরুণা ভাটিয়া অক্ষয় কুমারের জন্ম দেন। আর্মি অফিসার ছিলেন তার বাবা। তার মা অরুণা ভাটিয়া ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছেন। তার এক বোন অলকা ভাটিয়া চলচ্চিত্র ব্যবসায় নিযুক্ত নন। অক্ষয় তার পরিবারের খুব ঘনিষ্ঠ হওয়ার জন্য সুপরিচিত এবং প্রায়শই সোশ্যাল মিডিয়াতে তাদের সম্পর্কে ফটো এবং আপডেট পোস্ট করেন।

সম্পর্কনামবিবরণ
পিতাহরি ওম ভাটিয়াতিনি ছিলেন একজন সেনা অফিসার।
মাতাঅরুনা ভাটিয়াতিনি ছিলেন চলচ্চিত্র উৎপাদনে জড়িত।
বোনআলকা ভাটিয়াতিনি চলচ্চিত্র শিল্পে জড়িত নন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা (Educational qualification)

অক্ষয় কুমার মিরিক, দার্জিলিং-এর ডন বস্কো উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। স্কুল শেষ করার পরে তিনি মুম্বাই-এর গুরু নানক খালসা কলেজে পড়াশোনা করেছেন।অক্ষয় কুমারের স্কুল এবং কলেজের দিনগুলিতে খেলাধুলায় আগ্রহ ছিল তা জানা যায়। তিনি থাইল্যান্ডের ব্যাংককে মার্শাল আর্টস পড়াশোনা করেছেন এবং তাঁর ট্যাকওয়ন্ডোতে কালো বেল্ট আছে। চলচ্চিত্র শিল্পে প্রবেশ করার আগে তিনি ব্যাংককে একজন রান্নাঘরের কর্মী এবং ওয়েটার হিসেবে কাজ করেছেন।

বৈশিষ্ট্যতথ্য
স্কুলডন বস্কো উচ্চ বিদ্যালয়, মিরিক, দার্জিলিং
কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়গুরু নানক খালসা কলেজ (কিংস সার্কেল), মুম্বাই
শিক্ষাগত যোগ্যতাজানা নেই

কর্মজীবন (Career)

  • প্রথম জীবনের কর্মজীবন: অক্ষয় কুমার ১৯৯১ সালে বলিউড চলচ্চিত্র “সৌগান্ধ” এ অভিনয় শুরু করেন। তবে, তিনি শিল্পে প্রধান স্বীকৃতি পেয়েছেন “খিলাড়ি” (১৯৯২), “মোহরা” (১৯৯৪), এবং “সবচেয়ে বড় খিলাড়ি” (১৯৯৫) এর মতো অ্যাকশন চলচ্চিত্রে তাঁর ভূমিকা দিয়ে। তিনি বিশেষত নিজের স্টান্ট সম্পাদন করার জন্য উল্লেখযোগ্য।
  • মধ্যবর্তী জীবনের কমেডি এবং ড্রামায় পরিবর্তন: ১৯৯০-এর শেষে এবং ২০০০-এর শুরুতে অক্ষয় কমেডি চলচ্চিত্রে ভূমিকা নিতে শুরু করেন। তিনি “হেরা ফেরি” (২০০০), “মুঝসে শাদি করোগি” (২০০৪), এবং “গরম মসলা” (২০০৫) এর মতো সফল কমেডি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি একই সাথে “এক রিশ্তা: দ্য বন্ড অফ লাভ” (২০০১) এবং “বেওয়াফা” (২০০৫) এর মতো চলচ্চিত্রে ড্রামাটিক ভূমিকা নিয়েছেন।
  • আরও সাফল্য এবং স্বীকৃতি: অক্ষয় ২০০০ এর দশক এবং ২০১০ এর দশকের মধ্যে তাঁর ভূমিকা বিভিন্নভাবে বিস্তার করেন। তিনি “নমস্তে লন্ডন” (২০০৭), “সিং ইজ কিং” (২০০৮), “হাউসফুল” (২০১০), এবং “রাউডি রাঠোর” (২০১২) এর মতো চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য সমালোচনাত্মক স্বীকৃতি পেয়েছেন। তিনি ভারতের গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক বিষয়গুলি নিয়ে “টয়লেট: এক প্রেম কাহিনী” (২০১৭) এবং “প্যাড ম্যান” (২০১৮) এর মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।
  • উৎপাদন কাজ: তাঁর অভিনয় ক্যারিয়ারের পাশাপাশি, অক্ষয় কুমার ২০০৮ সালে উৎপাদন কোম্পানি হরি ওম এন্টারটেইনমেন্ট প্রতিষ্ঠা করেন এবং পরবর্তীতে ২০১২ সালে আরেকটি উৎপাদন কোম্পানি গ্রেজিং গোট পিকচারস প্রতিষ্ঠা করেন। এই কোম্পানিগুলি তিনি যে সব চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তার মধ্যে বেশ কিছু চলচ্চিত্র উৎপাদন করেছে।

অক্ষয় কুমার অভিনীত চলচ্চিত্র গুলি হল –

  • “সৌগান্ধ” (১৯৯১)
  • “খিলাড়ি” (১৯৯২)
  • “মোহরা” (১৯৯৪)
  • “সবচেয়ে বড় খিলাড়ি” (১৯৯৫)
  • “হেরা ফেরি” (২০০০)
  • “ধড়কন” (২০০০)
  • “অজনবী” (২০০১)
  • “আঁখেন” (২০০২)
  • “মুঝসে শাদি করোগি” (২০০৪)
  • “গরম মসলা” (২০০৫)
  • “ভাগাম ভাগ” (২০০৬)
  • “নমস্তে লন্ডন” (২০০৭)
  • “সিং ইজ কিং” (২০০৮)
  • “হাউসফুল” (২০১০)
  • “রাউডি রাঠোর” (২০১২)
  • “স্পেশাল ২৬” (২০১৩)
  • “হলিডে: এ সোল্জার ইজ নেভার অফ ডিউটি” (২০১৪)
  • “বেবি” (২০১৫)
  • “এয়ারলিফ্ট” (২০১৬)
  • “রুস্তম” (২০১৬)
  • “টয়লেট: এক প্রেম কাহিনী” (২০১৭)
  • “প্যাড ম্যান” (২০১৮)
  • “কেসরি” (২০১৯)
  • “গুড নিউজ” (২০১৯)
  • “লক্ষ্মী” (২০২০)

এছাড়াও ২০২১,২০২২ এবং ২০২৩ সালেও প্রচুর সিনেমা করে গেছেন এবং করে চলেছেন. যে আগামী দিনেও আশা করি অনেক ভাল ভাল ছবি মানুষদের । উপহার দিতে সক্ষম হবেন.

অক্ষয় কুমার অভিনীত টিভি সিরিয়াল এবং রিয়ালিটি শো গুলি হল –

অক্ষয় কুমার ভারতীয় সংস্করণের বাস্তবতানুসারে শো “ফিয়ার ফ্যাক্টর: খাত্রোন কে খিলাড়ি” এর বেশ কিছু সিজন হোস্ট করেছেন। তিনি রান্নার প্রতিযোগিতা শো “মাস্টারশেফ ইন্ডিয়া” এর প্রথম সিজনটিও হোস্ট করেছেন। ২০১৪ সালে, তিনি নৃত্য বাস্তবতানুসারে শো “ডেয়ার ২ ড্যান্স” হোস্ট করেছেন। ২০১৭ সালে, তিনি স্ট্যান্ড-আপ কমেডি প্রতিযোগিতা শো “দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান লাফটার চ্যালেঞ্জ” এ বিচারক হিসেবে কাজ করেছেন।

শোর নামভূমিকাবছর
ফিয়ার ফ্যাক্টর: খাত্রোন কে খিলাড়িহোস্ট২০০৮, ২০০৯, ২০১১, ২০১৫
মাস্টারশেফ ইন্ডিয়াহোস্ট২০১০
ডেয়ার ২ ড্যান্সহোস্ট২০১৪
দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান লাফটার চ্যালেঞ্জবিচারক২০১৭

বৈবাহিক অবস্থা এবং অ্যাফেয়ার (Marital status and affairs)

অক্ষয় কুমার বিখ্যাত বলিউড অভিনেতা রাজেশ খান্না এবং ডিম্পল কাপাড়িয়ার মেয়ে টুইঙ্কল খান্না কে বিবাহ করেছেন। তারা ২০০১ সালের ১৭ জানুয়ারী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতিদের দুটি সন্তান আছে, একজন ছেলে যার নাম আরভ এবং একজন মেয়ে যার নাম নিতারা।

তার বিবাহের আগে, অক্ষয় কুমারকে বেশ কিছু অভিনেত্রীর সাথে সম্পর্কিত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। এখানে কিছু বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হলো:

নামসম্পর্ক
রভিনা টান্ডনদুজনে নিয়ে খবর ছড়িয়েছিল যখন তারা ৯০-এর দশকে বেশ কিছু চলচ্চিত্রে একসাথে কাজ করেছিলেন।
শিল্পা শেট্টিঅক্ষয় এবং শিল্পার মধ্যে ৯০-এর দশকের শেষের দিকে একটি সম্পর্ক ছিল বলে খবর ছড়িয়েছিল। তবে, তারা অক্ষয়ের টুইঙ্কল খান্না কে বিবাহ করার আগে বিচ্ছেদ গ্রহণ করেন।
টুইঙ্কল খান্নাঅক্ষয় ২০০১ সালে টুইঙ্কল খান্না কে বিবাহ করেন এবং তাদের দুটি সন্তান আছে।

আরো জানুন >> বিদ্যা সিনহা সাহা মিমের জীবনীBidhya Sinha Saha Mim Biography In Bengali

বিতর্ক (Controversy)

  1. নাগরিকত্ব বিতর্ক: অক্ষয় কুমারের নাগরিকত্ব নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল যখন তার কানাডিয়ান পাসপোর্ট ধারণ করার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। এটি অনেক বিতর্ক এবং সমালোচনার কারণ হয়েছিল, বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অক্ষয় উত্তর দিয়েছিলেন যে তিনি কখনই কানাডিয়ান পাসপোর্ট ধারণ করার বিষয়টি অস্বীকার করেননি কিন্তু এর মানে এটি নয় যে তিনি তার ভারতীয় জাতীয়তা অবমাননা করেছেন।
  2. মল্লিকা দুয়া উপর মন্তব্য: ২০১৭ সালে, টিভি শো “দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান লাফটার চ্যালেঞ্জ” এর শুটিং চলাকালীন, অক্ষয় কমেডিয়ান মল্লিকা দুয়ার উপর একটি মন্তব্য করেন যা কিছু লোকের কাছে অনুপযুক্ত বলে মনে হয়েছিল। এর ফলে বিতর্ক হয়েছিল এবং অক্ষয় তাঁর মন্তব্যের জন্য সমালোচনা মোকাবিলা করতে হয়েছিল।
  3. রুস্তম ইউনিফর্ম নিলাম: অক্ষয় যখন তিনি চলচ্চিত্র “রুস্তম” এ পরেন নৌবাহিনীর ইউনিফর্মটি দানের জন্য নিলামে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তখন তিনি পিছিয়ে যান। অনেকে, যার মধ্যে সশস্ত্র বাহিনীর কিছু লোক, এই পদক্ষেপটি সমালোচনা করেছিলেন, বলে যে এটি ইউনিফর্ম এবং যারা এটি পরে তাদের অবমাননা করে।

প্রোফাইল (Profile)

FacebookAkshay kumar
InstagramAkshay kumar
TwitterAkshay kumar

পছন্দের জিনিসসমূহ (Favorites)

অক্ষয় কুমারের পছন্দের জিনিস গুলি হল –

বিষয়বস্তুপ্রিয়
খাবারঘরে তৈরি ভারতীয় খাবার, বিশেষ করে পাঞ্জাবি রান্না
অভিনেতাঅমিতাভ বচ্চন
অভিনেত্রীশ্রীদেবী
শখমার্শাল আর্টস, রান্না, ওয়ার্কআউট
গন্তব্যকানাডা, ভারতের গোয়া
খেলোয়াড়অজানা
খেলাভলিবল, বাস্কেটবল
চলচ্চিত্র“লাইফ ইজ বিউটিফুল”
বাস্তবতানুসারে শো“ফিয়ার ফ্যাক্টর: খাত্রোন কে খিলাড়ি” (তিনি ছিলেন হোস্ট)

অক্ষয় কুমার তাঁর ফিটনেস এবং মার্শাল আর্টস প্রতি ভালবাসা জন্য পরিচিত, যা তিনি অনেক সময় তাঁর চলচ্চিত্রের ভূমিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন। তিনি ঘরে তৈরি ভারতীয় খাবারের বড় ভক্ত, বিশেষ করে পাঞ্জাবি রান্নার পদ। তাঁর প্রিয় অভিনেতা হলেন অমিতাভ বচ্চন, এবং তাঁর প্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন স্বর্গীয় শ্রীদেবী। তিনি ভ্রমণ উপভোগ করেন এবং কানাডা এবং গোয়া প্রতি ভালবাসা প্রকাশ করেছেন। তাঁর প্রিয় চলচ্চিত্র হল “লাইফ ইজ বিউটিফুল”।

নেটওয়ার্থ (Net Worth)

অক্ষয় কুমার অভিনয় জগত ছাড়াও বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন এবং ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবেও কাজ করে থাকেন. এই সমস্ত কার্যকলাপে দরুন তিনি প্রচুর টাকা আয় করে থাকেন.

বিভাগপরিমাণ
নেট ওয়ার্থপ্রায় $ ৪৫০ মিলিয়ন (২০২৩ সালের পর্যায়ে)
প্রতি চলচ্চিত্রে বেতনপ্রায় ₹ ৪ থেকে ৫ কোটি (ভারতীয় মূল্যতে)
বার্ষিক আয়বিভিন্ন

অক্ষয় কুমার বলিউডের সর্বাধিক বেতন প্রাপ্ত অভিনেতাদের মধ্যে একজন। ২০২৩ সাল পর্যন্ত তাঁর নেট ওয়ার্থ প্রায় $ ৪৫০ মিলিয়ন হিসেবে অনুমানিত হয়। প্রতিবেদন অনুযায়ী তিনি প্রতি চলচ্চিত্রে প্রায় ₹ ৪ থেকে ৫ কোটি চার্জ করেন, তবে এটি প্রকল্পের উপর নির্ভর করে পরিবর্তন হতে পারে। তাঁর বার্ষিক আয় তিনি যে সংখ্যক চলচ্চিত্র করেন, সমর্থন, এবং অন্যান্য ব্যবসায়িক উদ্যোগের উপর নির্ভর করে পরিবর্তন হয়।

পুরস্কার/সম্মান (Awards/Honors)

অক্ষয় কুমার ও তার বহুমুখী অভিনয় প্রতিভা এবং কার্যকলাপের দরুন বিভিন্ন পুরস্কার দ্বারা ভূষিত হয়েছেন. তার প্রাপ্য পুরস্কার এবং সম্মানগুলি হল –

বছরপুরস্কারবিভাগচলচ্চিত্র
২০০২ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসেরা খালনায়ক“অজনবী”
২০০৬ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসেরা হাস্য অভিনেতা“গরম মসলা”
২০১৭জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসেরা অভিনেতা“রুস্তম”
২০০৯পদ্ম শ্রীশিল্প
২০২০জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসামাজিক বিষয়গুলিতে সেরা চলচ্চিত্র (প্রযোজক হিসেবে)“প্যাড ম্যান”

অক্ষয় কুমারকে তাঁর অভিনয়ের বৈচিত্র্যের জন্য স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে, তিনি খালনায়ক ভূমিকা, হাস্য ভূমিকা, এবং নেতৃত্ব ভূমিকার জন্য পুরস্কার জিতেছেন। ২০০৯ সালে, তিনি শিল্পে তাঁর অবদানের জন্য পদ্ম শ্রী পেয়েছেন, যা ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ নাগরিক পুরস্কার। ২০২০ সালে, তিনি “প্যাড ম্যান” চলচ্চিত্রের প্রযোজক হিসেবে সামাজিক বিষয়গুলিতে সেরা চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন, যা মাসিক স্বাস্থ্য বিষয়টি সম্মুখীন করে।

অক্ষয় কুমার সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য (Some unknown facts about Akshay Kumar)

অক্ষয় কুমার সম্পর্কে অনেকগুলি অজানা তথ্য রয়েছে সেগুলি নিচে পড়ে না করে দেয়া হলো –

  • আসল নাম: অক্ষয় কুমারের আসল নাম হল রাজীব হরি ওম ভাটিয়া। তিনি চলচ্চিত্র শিল্পে প্রবেশ করার সময় তাঁর নাম পরিবর্তন করেছিলেন।
  • মার্শাল আর্টস: অভিনেতা হওয়ার আগে অক্ষয় কুমার থাইল্যান্ডের ব্যাংককে মার্শাল আর্টস শিখেছিলেন। তিনি টেকওয়ানডোতে কালো বেল্ট এবং মুয়ায় থাই শিখেছেন।
  • রান্নাবান্না এবং ওয়েটার: ব্যাংককে থাকার সময় অক্ষয় রান্নাবান্না এবং ওয়েটার হিসেবে কাজ করেছিলেন। পরবর্তীতে তিনি এই অভিজ্ঞতিগুলি তাঁর “শেফ” এবং “নমস্তে লন্ডন” মতো চলচ্চিত্রের ভূমিকায় ব্যবহার করেছেন।
  • স্টান্ট পারফরমার: অক্ষয় কুমার তাঁর চলচ্চিত্রের নিজের স্টান্ট সম্পাদন করার জন্য পরিচিত এবং তাঁকে অনেক সময় “ভারতীয় জ্যাকি চ্যান” হিসেবে উল্লেখ করা হয়।
  • ফিলান্থ্রপি: অক্ষয় বিভিন্ন পুনঃস্থাপনা কার্যক্রমে যুক্ত আছেন। তিনি স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা সম্পর্কিত কারণগুলিতে বিশেষ আগ্রহ রাখেন।
  • ফিটনেস এন্থুসিয়াস্ট: অক্ষয় একজন ফিটনেস এন্থুসিয়াস্ট এবং তিনি তাঁর শাস্ত্রসম্মত জীবনধারণের জন্য পরিচিত। তিনি প্রতিদিন সকাল ৪টায় উঠেন এবং তাঁর বিশ্বাস হল তাড়াতাড়ি শুতে, তাড়াতাড়ি উঠতে।
  • কানাডিয়ান নাগরিকত্ব: অক্ষয় কানাডিয়ান নাগরিকত্ব ধারণ করেন, যা ভারতে একটি বিতর্কের বিষয় হয়েছে।
  • টেলিভিশন উপস্থাপনা: চলচ্চিত্রের পাশাপাশি, অক্ষয় বাস্তবতানুসারে শো “ফিয়ার ফ্যাক্টর: খাত্রোন কে খিলাড়ি” এর বিভিন্ন সিজন উপস্থাপনা করেছেন।
  • প্রযোজনা কোম্পানি: অক্ষয় কুমারের একটি প্রযোজনা কোম্পানি রয়েছে যার নাম হরি ওম এন্টারটেইনমেন্ট, যা ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।
  • পুরস্কার: অক্ষয় কুমার তাঁর চলচ্চিত্রের অভিনয়ের জন্য বিভিন্ন পুরস্কার পেয়েছেন, যার মধ্যে “রুস্তম” চলচ্চিত্রে তাঁর অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার সেরা অভিনেতা রয়েছে।

FAQs – অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali

Q-1. অক্ষয় কুমারের বয়স কত?

Ans. অক্ষয় কুমারের বয়স হল ৫৫ বছর (২০২৩ সালের হিসাবে)।

Q-2. অক্ষয় কুমারের উচ্চতা কত?

Ans. অক্ষয় কুমারের উচ্চতা হল5′ 11″ (180 সেন্টিমিটার)।

Q-3. অক্ষয় কুমারের ভাইয়ের নাম কি?

Ans. অক্ষয় কুমারের ভাইয়ের নাম সম্পর্কে তেমন কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali

অসংখ্য ধন্যবাদ আমাদের এই পোস্টটি “অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali” পড়ার জন্য। এই পোস্টটি অক্ষয় কুমারের জীবনী – Akshay kumar Wiki/Bio, Age & More In Bengali” কেমন লাগলো তা কমেন্টের মাধ্যমে জানান। আশা করি পোস্টটি আপনাদের কে অক্ষয় কুমারের সম্পর্কে অনেক তথ্য জানতে সাহায্য করেছে ।আমরা এই সমস্ত তথ্যগুলি অনেক রকম ভাবে ভালোভাবে অনুসন্ধান করে সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করি। যদি কোনো তথ্য ভুল মনে হয়ে থাকে তাহলে মন্তব্য ফর্মটি পূরণ করে আমাদেরকে শেয়ার করতে পারেন।এরকম আরো মানুষের জীবনী সম্পর্কে জানতে আমাদের এই সাইটটিকে bongbio.com ফলো করুন।

ধন্যবাদ!

মন্তব্য করুন